সংক্রমণের নয়া রেকর্ড দেশে, একদিনে মৃত প্রায় ৪ হাজার, থার্ড ওয়েভ যেন ক্রমেই অনিবার্য হয়ে উঠছে

দ্য ওয়াল ব্যুরো: প্রতিদিনই নতুন রেকর্ড দেশে। সাধারণ কোনও রেকর্ড হলে হয়তো তা গর্বের হতো, কিন্তু এ রেকর্ডে রোজই মাত্রা ছাড়াচ্ছে দেশের দৈনিক কোভিড আক্রান্তের সংখ্যা। গত ২৪ ঘণ্টায় যা দাঁড়িয়েছে ৪ লক্ষ ১৪ হাজার ১৮৮ জনে। নতুন করে ভেঙেছে সংক্রমণের সব হিসেব। একদিনে করোনায় মারা গেছেন ৩৯১৫ জন, যা আবারও এক রেকর্ড।

গতকাল, অর্থাৎ বৃহস্পতিবার দেশে দৈনিক করোনা আক্রান্তের সংখ্যা পেরিয়েছিল ৪ লক্ষ ১২ হাজার। আর শুক্রবার তা এক লাফে ২০০০ বেড়ে তৈরি করল নয়া রেকর্ড। মৃত্যুর হারও আগের কয়েকদিনের চেয়ে বেশি।

সুস্থতার পরিসংখ্যানেও তেমন স্বস্তি নেই। গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়ে ফিরেছেন ৩ লক্ষ ৩১ হাজার ৫০৭ জন। এখনও পর্যন্ত করোনাকে কাবু করে এ পর্যন্ত মোট সুস্থ হয়ে উঠেছেন দেশের ১ কোটি ৭৬ লক্ষ ১২ হাজার ৩৫১ জন। সব মিলিয়ে এখন দেশে অ্যাকটিভ রোগীর সংখ্যা ৩৬ লক্ষ ৪৫ হাজার ১৬৪।

সম্প্রতি অনেকে ভেবেছিলেন, ভারতে সেকেন্ড ওয়েভ ধীরে ধীরে স্তিমিত হয়ে আসছে। কিন্তু কার্যক্ষেত্রে একেবারেই তার ইঙ্গিত নেই। একদিনে ফের সর্বাধিক মৃত্যুর রেকর্ড তৈরি হল ভারতে। ভাইরাস সংক্রমণে দৈনিক মৃত্যু চার হাজারের গণ্ডি ছুঁতে চলেছে। মহারাষ্ট্র, গুজরাট, কর্নাটক, কেরল-সহ ১২ রাজ্যে সংক্রমণের ভয়ঙ্কর ঢেউ আছড়ে পড়েছে।

স্বাস্থ্যমন্ত্রক জানাচ্ছে, অসম, পশ্চিমবঙ্গ, বিহার, ওড়িশা, ঝাড়খণ্ডে দৈনিক সংক্রমণের হার বেশ। এই রাজ্যগুলিতে করোনায় মৃত্যুহারও বাড়ছে। অন্যদিকে, মহারাষ্ট্র, গুজরাট, কর্নাটক, কেরল, উত্তরপ্রদেশে ভাইরাস সক্রিয় রোগীর সংখ্যা লাগামহীন ভাবে বেড়ে চলেছে। স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা বলছেন, গত দু’সপ্তাহে মহারাষ্ট্রের ১৫টি জেলা, কেরলের ১০টি জেলা, অন্ধ্রপ্রদেশের ৭টি ও কর্নাটকের ৩টি জেলায় কোভিড পজিটিভ রোগীর সংখ্যা হু হু করে বেড়েছে। কোভিড পজিটিভিটি রেটও এই জেলাগুলিতে বেশি।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (হু) বলছে, বিশ্বের মোট কোভিড আক্রান্তের ৪৬ শতাংশই ভারতে। মৃত্যুর ২৫ শতাংশ হয়েছে ভারত থেকে। আমেরিকা ও ব্রাজিলের দৈনিক সংক্রামিতের সংখ্যাকেও ছাড়িয়ে গেছে ভারত। আমেরিকায় ১ লাখ বা তার কম নতুন সংক্রমণ ধরা পড়ছে রোজ, কিন্তু ভারতে প্রতিদিনই ৪ লাখের বেশি নতুন সংক্রমণ ধরা পড়ছে।

করোনার তৃতীয় ঢেউ আসতে পারে বলে আশঙ্কার কথাও জানিয়েছেন বিজ্ঞানীরা। কেন্দ্রের বিজ্ঞান উপদেষ্টা ডক্টর কে বিজয়রাঘবন বুধবার সাংবাদিক বৈঠক করে বলেছেন, কোভিড সংক্রমণ যে গতিতে বেড়ে চলেছে তাতে ‘থার্ড ওয়েভ’ অনিবার্য। তবে কখন এবং কোন সময়ে এই তৃতীয় ঢেউ ধাক্কা দেবে সেটা এখনই বলা মুশকিল।

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More