শনিবার, ফেব্রুয়ারি ১৬

আড়াইজন মিলে যেন আমাদের শাসন না করে, মোদীর সমালোচনার পালটা অখিলেশের

দ্য ওয়াল ব্যুরো : বৃহস্পতিবার লোকসভায় দাঁড়িয়ে বিরোধী জোটকে কটাক্ষ করেছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। শুক্রবার তার জবাব দিলেন উত্তরপ্রদেশে বিরোধী জোটের অন্যতম নেতা অখিলেশ সিং যাদব। মোদী বলেছিলেন, একটি স্বাস্থ্যবান গণতন্ত্রে অস্বাস্থ্যকর জোট চলতে পারে না। অখিলেশ তার পালটা বলেছেন, আড়াই জন মিলে যেন আমাদের শাসন করতে না পারে।

টু অ্যান্ড হাফ মেন নামে একটি ধারাবাহিক আমেরিকায় খুব জনপ্রিয়। তার কাহিনি দুই পুরুষ ও এক কিশোরকে নিয়ে। পর্যবেক্ষকদের ধারণা, অখিলেশ আড়াইজন বলতে কেন্দ্রে নরেন্দ্র মোদী ও বিজেপির সভাপতি অমিত শাহ এবং উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথকে বোঝাতে চেয়েছেন।

বিরোধী জোটকে মোদী ব্যঙ্গ করে বলেছিলেন ‘মহামিলাওয়াত’। একইসঙ্গে বলেছিলেন, এনডিএ সরকারের সমালোচনা করার আগে বিরোধীরা বরং নিজেদের দিকে তাকিয়ে দেখুন। মোদীর অভিযোগ, বিরোধী দলগুলি তাঁকে ঘৃণা করতে গিয়ে দেশকেই ঘৃণা করছে। তাঁদের এমন কাজ করা উচিত নয় যাতে দেশের ক্ষতি হয়। তিনি বিদ্রুপ করেন, বিরোধী জোটের অনেক নেতা পরস্পরের মুখদর্শন করেন না।

অখিলেশ বলেন, মহামিলাওয়াতের পাল্লায় পড়ে কোন দল ধ্বংস হয়ে যাবে আপনি জানেন না। নেভার এগেইন হ্যাশট্যাগে একটি টুইট করে তিনি বলেছেন, মানুষ যেন আর বিজেপির ফাঁদে না পড়ে। এই প্রসঙ্গে তিনি তুলেছেন নোটবন্দি, কৃষকদের সমস্যা ও গণধোলাইয়ে মৃত্যুর কথা। এরপরে অখিলেশের সমাজবাদী পার্টি থেকেও একাধিক টুইট করে জনগণের উদ্দেশে আহ্বান করা হয়, বিজেপির ফাঁদে পড়বেন না।

উত্তরপ্রদেশে সম্প্রতি বিজেপির বিরুদ্ধে হাত মিলিয়েছে দীর্ঘদিনের শত্রু বহুজন সমাজ পার্টি ও সমাজবাদী পার্টি। সাধারণত উত্তরপ্রদেশে যে দল বেশি লোকসভা আসন পায়, তারাই দিল্লিতে সরকার গঠন করে। ওই রাজ্যে বিজেপির পক্ষে বড় চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়িয়েছে বসপা ও সপার জোট। রাজ্যে ৮০ টি লোকসভা আসন আছে। তার সিংহভাগ যাতে দখল করা যায়, সেজন্য আগে থেকেই চড়া সুরে প্রচার শুরু করেছে অখিলেশদের জোট।

কিছুদিন আগে এক সাংবাদিক বৈঠকে অখিলেশ বলেন, আমাদের জোট অটুট আছে। কে ক’টা আসনে লড়বে তা ঘোষণা করা হবে পরে।

গত মাসে কলকাতায় তৃণমূলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ডাকে বিরোধীদের সমাবেশ হয়। তার পরেই বিজেপি আরও চড়া সুরে বিরোধী জোটকে আক্রমণ করতে থাকে। অখিলেশ যাদব কলকাতার সমাবেশে উপস্থিত ছিলেন। যদিও তাঁর জোটসঙ্গী তথা বিএসপি নেত্রী মায়াবতী সমাবেশে যাননি।

Shares

Comments are closed.