কোভিড পজিটিভের সংস্পর্শে এসেও পরপর জনসভা করে যাচ্ছেন যোগী, তোপ প্রিয়ঙ্কার

দ্য ওয়াল ব্যুরো: হু হু করে বাড়ছে করোনাভাইরাস সংক্রমণ। প্রায় প্রতিদিনই নতুন সংক্রমণের রেকর্ড হচ্ছে। প্রধানমন্ত্রী থেকে শুরু করে স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা কোভিড মোকাবিলায় ভ্যাকসিন নেওয়ার পরও মাস্ক পরা, সামাজিক দূরত্ব পালনের মতো স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার পরামর্শ দিচ্ছেন। কিন্তু তার মধ্যেই উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের বিরুদ্ধে চাঞ্চল্যকর অভিযোগ তুললেন প্রিয়ঙ্কা গাঁধী বঢরা, যা সত্যি প্রমাণিত হলে মারাত্মক ব্যাপারে। কংগ্রেস সাধারণ সম্পাদকের দাবি, আদিত্যনাথ এক কোভিড-১৯ পজিটিভ ব্যক্তির সংস্পর্শে আসার  পরও জনসভার পর জনসভা করে চলেছেন! উত্তরপ্রদেশের  মুখ্যমন্ত্রীর  অফিস থেকে সংক্রমণের হার  নিয়ে ভুল তথ্য দেওয়া হচ্ছে বলেও অভিযোগ তুলে প্রিয়ঙ্কা বলেন, শ্মশানগুলিতে দীর্ঘ লাইন পড়ছে, হাসপাতালগুলিতেও ভিড় উপচে পড়ছে। এতে লোকের মনে আতঙ্ক ছড়াচ্ছে। প্রিয়ঙ্কার অভিযোগ, মিডিয়া রিপোর্টে প্রকাশ, উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী এক কোভিড পজিটিভ ব্যক্তির সংস্পর্শে আসার পরও জনসভা করে যাচ্ছেন।

প্রিয়ঙ্কা পশ্চিমবঙ্গে সংযুক্ত মোর্চার সমর্থনে এখনও প্রচারে আসেননি। তবে অসম, কেরল, তামিলনাড়ুর ভোটপ্রচারে কংগ্রেসের স্টার প্রচারকারী তিনি। কিন্তু স্বামী রবার্ট বঢরা করোনা পজিটিভ হওয়ার পর ২ এপ্রিল যাবতীয় রাজনৈতিক প্রচার কর্মসূচি বাতিল করেন প্রিয়ঙ্কা। তিনি  নিজে করোনা পরীক্ষায় নেগেটিভ হলেও ডাক্তারদের পরামর্শ মানছেন বলে জানিয়েছেন প্রিয়ঙ্কা। নাম না করে উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী সম্পর্কে তাঁর বক্তব্য, উত্তরপ্রদেশের লোকের মনে ভয়,  আতঙ্ক ঢুকে গিয়েছে। এসময়  নেতাদের উচিত নিজেদের আচরণের মাধ্যমে দৃষ্টান্ত তৈরি করা। কিন্তু যাঁদের স্বচ্ছতা, দায়বদ্ধতা দেখানোর কথা, তাঁরা নিজেরাই দায়িত্বজ্ঞানহীনতার পরিচয় দিচ্ছেন। সঙ্কটের সময়ে নেতৃত্বেক উচিত সত্যের নজির গড়ে সঠিক আচরণ করা যাতে মানুষ তাদের ওপর ভরসা করতে পারে।

 

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More